২০২০ হজে যেই প্রযুক্তি ব্যবহার হয়েছিল

admin

Administrator
Staff member
Jul 14, 2020
50
6
8
মুসলিম উম্মাহর সবচেয়ে বড় একটি কার্যক্রম হলো হজ পালন। এটির জন্য একজন মুসলিম তার সারাজীবন অপেক্ষা করে। প্রতিবছর অনেকেই হজের সুযোগ পেলেও এই মহামারীর কারণে এবার সেই সুযোগ সৌদির বাইরের কেও পায়নি। সৌদিতে অবস্থিত সরকারি লোকজন এবং বাছাইকৃত লোকজন এবারের হজে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছেন। পাশাপাশি এবারের হজে ব্যবহার করা হয় অনেক আধুনিক সুযোগ সুবিধা। যাতে করে কোনো হজযাত্রী কোনো ভাবে আক্রান্ত না হয়।


হজ্জ্ব যাত্রীরা মক্কায় প্রবেশ করার আগে সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় থেকে তাদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করার জন্য এবং বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার জন্য তাদের জন্য একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তিসম্পর্ণ রিস্টব্যান্ড প্রদান করা হয়। হজ যাত্রীদের নিয়মিত শরীরের তাপমাত্রা মাপার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সব কয়টি স্থানে ব্যাবহার হয়েছে থার্মাল স্ক্যানার। ২০ জন করে হজ যাত্রীদের দল তৈরী করা হয়েছিল। এইরকম প্রতিটি দলকে একজন অভিজ্ঞ গাইডের কাছে স্থানান্তর করা হয়েছিল যাতে করে হজ্জের পুরোটা সময় জুড়ে এই গাইড তাদের সব গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সাথে নিয়ে যাবেন একটি নিদৃষ্ট সময়ের মধ্যেই যাতে করে গ্র্যান্ড মসজিদের মতো জায়গায় জনসমাগম এড়ানো যায় এবং মুসলমানরা যেই জায়গাটিতে কাবা প্রদক্ষিণ করে এবং হযরত ইব্রাহিমের স্ত্রীর পুত্রের জন্য যেখানে পানির সন্ধান করেছেন সেই দুই পাহাড়ের মাঝখানে। যাতে করে খুব বেশি জনসমাগম না হয় এবং নিদৃষ্ট সময়ের মধ্যে প্রতি গ্রূপ গিয়ে আবার চলে আসতে পারে এবং সেই স্থানটি পরের গ্রূপ এর জন্য খালি করে দেয়া যায়। আরাফার দিন সেখানে হজযাত্রীরা উচ্চ প্রযুক্তির একটি আইডি কার্ড পরিধান করেন যা তাদের ফোনে একটি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে সংযুক্ত ছিল। এই কার্ড এবং এপের মাধ্যমে হজযাত্রীরা সহজে প্রশাসনের মনিটরে থাকবেন। এবং তারা সহজেই তাদের গ্রূপ লিডার এর কাছে পৌঁছে যেতে পারবেন এবং খাবার দরকার পড়লে বিশেষভাবে সেই কার্ড ব্যবহার করে খাবারের অনুরোধ জানাতে পারবেন। এই কার্ডটিতে একজন হজযাত্রীর ব্যাক্তিগত সকল তথ্য, স্বাস্থের অবস্থা, কোথায় থাকেন এবং হজ সম্পর্কিত যাবতীয় সব তথ্য উপাত্তও সংরক্ষিত ছিল।


হজ যাত্রীদের হজ্জের সময় পরিধানের জন্য বিশেষ একধরণের পোশাক দেওয়া হয়েছিল যেই পোশাক গুলো একধরণের রুপার ন্যানো টেকনোলজির ফিতা যুক্ত করে দেয়া হয়েছে। ফলে এটি ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু মারতে সহায়তা করে এবং কাপড়টি পানি প্রতিরোধী করে তৈরী করা হয়। এছাড়া সমস্ত খাবার, হোটেল থাকার ব্যবস্থা, পরিবহন এবং স্বাস্থ্যসেবা সহ সবকিছুর খরচ সৌদি সরকার বহন করেছে। সাধারণত, হজের এই প্রক্রিয়ায় হাজার হাজার ডলার ব্যয় করতে হয় একজন হজ্জ্ব যাত্রীদের। অনেকে এই হজ্জের জন্য তাদের আজীবনের সঞ্চয় খরচ করেন।